Home / অর্থ ও বাণিজ্য / এশিয়ায় জাপানি প্রতিষ্ঠানগুলো বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি

এশিয়ায় জাপানি প্রতিষ্ঠানগুলো বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি

ক্রমবর্ধমান শ্রম ব্যয় ও শ্রমিকস্বল্পতা
ডেস্ক রিপোর্ট

এশিয়ায় জাপানি প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য আগামীতে সবচেয়ে বড় ঝুঁকি হিসেবে দেখা হচ্ছে ক্রমবর্ধমান শ্রম ব্যয় এবং দক্ষ শ্রমিকের স্বল্পতাকে। এনএনএর একটি জরিপে প্রায় ৭৬ শতাংশ অংশগ্রহণকারী এ দুটি বিষয়কে তাদের সবচেয়ে উদ্বেগ হিসেবে অভিহিত করেছেন। খবর জাপান টুডে।

পূর্ব এশিয়া, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, ভারত ও অস্ট্রেলিয়ায় সক্রিয় জাপানি কোম্পানিগুলো থেকে জরিপে অংশ নেয়া ৬৩০ জনের মধ্যে ৪৭৯ জনই শ্রম ঝুঁকিকে সবচেয়ে বড় ঝুঁকি হিসেবে অভিহিত করেছেন। জরিপে উত্থাপিত প্রশ্নগুলোর মধ্যে ছিল কর, শুল্ক, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা ঝুঁকির মতো ১৩টি প্রশ্ন।

গত ২৬ নভেম্বর থেকে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত পরিচালিত ওই জরিপে থাইল্যান্ডে এক জাপানি উৎপাদক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি জানান, ‘যদি শ্রম ব্যয় বৃদ্ধি অব্যাহত থাকে, তাহলে আমাদেরকে অন্যান্য দেশে কারখানা স্থানান্তর করতে হবে।’

সিঙ্গাপুরে ৯১ শতাংশ অংশগ্রহণকারী জানিয়েছেন, তারা মূলত দক্ষ কর্মী-স্বল্পতা নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন, বিশেষ করে প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ-স্বল্পতা।

থাইল্যান্ডে ৮৬ শতাংশ অংশগ্রহণকারী বলছেন, তারা শ্রম ব্যয় নিয়ে সবচেয়ে বেশি উদ্বিগ্ন। একই বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার ৮৪ শতাংশ, ইন্দোনেশিয়ার ৮৩ শতাংশ, এবং অস্ট্রেলিয়া, মালয়েশিয়া ও ভিয়েতনামের ৮০ শতাংশ অংশগ্রহণকারী।

সব মিলিয়ে ৪৫ শতাংশ অংশগ্রহণকারী কর ও শুল্ককে সবচেয়ে বড় হুমকি হিসেবে দেখছেন। এছাড়া বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় হারে অস্থিরতাকেও সংকট হিসেবে দেখছে ৪৫ শতাংশ অংশগ্রহণকারী। আর বিচারিক ব্যবস্থাকে ঝুঁকি হিসেবে দেখছে ৪২ শতাংশ অংশগ্রহণকারী।

গ্রামাঞ্চল থেকে শহরে শ্রমপ্রবাহ নিয়ন্ত্রণে সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের কারণে চীনে প্রায় ৭৭ শতাংশ অংশগ্রহণকারী ক্রমবর্ধমান শ্রম ব্যয় নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চলমান বাণিজ্যযুদ্ধের মধ্যে চীনের প্রায় ৪৮ শতাংশ অংশগ্রহণকারী কর ও শুল্ককে সবচেয়ে বড় ঝুঁকি হিসেবে দেখছে।

 

About polok chw

Check Also

১০২ জন ইয়াবা কারবারির আত্মসমর্পণ

দেশে প্রথমবারের মতো ১০২ জন ইয়াবা কারবারি আত্মসমর্পণ করেছেন। আত্মসমর্পণের পর তাদের ফুল দিয়ে বরণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *