Home / সম্পাদকীয় / হারিয়ে যাচ্ছে “বিদ্যালয়”

হারিয়ে যাচ্ছে “বিদ্যালয়”

সংবাদের ভাষা মার্জিত ও শুদ্ধ হতে অসুবিধা কোথায়? প্রতিটি পেশার কিছু নৈতিকতার দিক থাকে। যেমন আছে চিকিৎসকের তেমনি আছে মুদি দোকানীর। একটি সংবাদ শুধু সংবাদ নয়। এটার একটি সাহিত্য ভিত্তিক মান আছে। ইন্টারনেট এর কল্যানে একটি সংবাদ বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে খুব সহজেই। সেই সংবাদটি যেসকল মানুষেরা পড়বে তাদের ভিতর সেই সংবাদের ভাষা, বানান, বাক্যের গঠন, সংবাদের তাৎপর্য ইত্যাদি সেই মানুষ গুলোর মনোজগতে পরিবাহিত হবে এটাই স্বাভাবিক। যা সেই সকল পাঠকের মনোজগতকে বিশুদ্ধ করে অথবা দুষিত করে। একজন মানুষ যদি দিনে গড়ে পাঁচটি সংবাদ পড়ে আর সেখানে সে বিভিন্ন ভুল পড়তে থাকে এক সময় তা তার কাছে ভুলটা সাধারন বিষয় হয়ে যেতে পারে এবং সে নিজেও সেই ভুল করতে পারে। অতএব সংবাদ এর দ্বারা বা মাধ্যমে সমাজ ব্যধিগ্রস্থ হতে পারে। সুতরাং একটি সংবাদ শুদ্ধ ভাষাতে প্রকাশ করা অত্যাবশ্যক।

“বিদ্যালয়” কি সুন্দর একটি বাংলা শব্দ কিন্তু হতাশার সাথে বলছি বেশির ভাগ জাতীয় কাগজে স্কুল লেখা হয়, অনলাইনেতো !!। সবচেয়ে কস্টের বিষয় হলো বিদ্যালয় গুলো নিজেরাই স্কুল লেখে। আমরা নিজেরাও কথা বলার সময় স্কুল বলি। একটি দির্ঘ্য কালের বিদেশী শব্দের ব্যবহার একটি দেশী শব্দকে অতীত করে দিল। এ দায় কি সাংবাদিক ও সম্পাদকরা এড়িয়ে যেতে পারবেন? একটি সুন্দর বাংলা শব্দ প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছে।
সংবাদের ভাষা নিয়ে আমাদের আরও সচেতন হওয়া উচিত। তবে জেলা বিদ্যালয় গুলোর নাম ফলকে স্কুল লেখার দায় কিন্তু স্কুল কর্তৃপক্ষ ও শিক্ষা বিভাগকেই নিতে হবে সাংবাদিকগণ এখানে গৌন।

গোলাম মাসুম জিকো সম্পাদক নিহনবাংলা ডট কম

About Golam Masum

Check Also

আগামী সপ্তাহে জাপান-যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্যচুক্তির সম্ভাবনা

ডেস্ক রিপোর্টবাণিজ্য নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছানোর পর জাপান ও যুক্তরাষ্ট্র একটি বাণিজ্য চুক্তি চূড়ান্ত করবে বলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *