দেশের বাইরে বাংলাদেশি মারা গেলে সেখানেই দাফনের অনুরোধ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

দেশের বাইরে কোনো বাংলাদেশি মারা গেলে সেখানেই তাকে দাফনের অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।
রোববার (২২ মার্চ) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে প্রবাসীদের প্রতি এই অনুরোধ জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, ‘যারা যে দেশে আছেন, সে দেশেই থাকুন। সে দেশের আইন কানুন মানুন। কোনো কিছুর দরকার হলে দূতাবাসে যোগাযোগ করুন। দূতাবাস আপনাদের সেবায় চব্বিশ ঘণ্টা নিয়োজিত আছে। কারও দূতাবাসে আসার প্রয়োজনও নেই। টেলিফোন করে সেবা চান, পেয়ে যাবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘করোনা একটি নতুন দুর্যোগ। আমরা এখনো এই ভাইরাস সম্পর্কে বেশি কিছু জানতে পারছি না। তাই সকলের নিরাপত্তার স্বার্থে বিদেশের মাটিতে এখন যারা মারা যাবেন, তাদের পরিবারদের প্রতি অনুরোধ মৃত ব্যক্তিকে বিদেশেই দাফন করুন।’

মন্ত্রী বলেন, ‘মক্কায় নামাজের জামায়াত স্থগিত করা হয়েছে। তার মানে বিষয়টি সিরিয়াস। আমি বলব, সবাই সিরিয়াস হোন। আশা করি, এর মাধ্যমে আমরা এই ভাইরাস মোকাবিলা করতে পারব।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন আরও বলেন, ‘করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ১০ হাজার কিট, ১০ হাজার পিপিআই এবং ১০ হাজার অন্যান্য স্বাস্থ্য সরঞ্জাম যেকোনো সময় চীন থেকে আসছে। এজন্য আমরা চীনের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছি। এই সরঞ্জামগুলো আনার জন্য আমরা চার্টার্ড বিমান খুঁজছি।’

প্রবাসীদের প্রতি বাংলাদেশ সফর এড়িয়ে চলার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘কারও ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে মেয়াদ বাড়াবে বিভিন্ন দেশ, দুঃশ্চিন্তার কারণ নেই। যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে তাদের মেয়াদ বাড়ানো হবে। আমরা সৌদি আরব, আরব আমিরাত, কাতার, কুয়েত এবং ইরাকের সঙ্গে বৈঠক করেছি। তারা আমাদের জানিয়েছেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সবাই আবার ফিরে যেতে পারবেন। এর মধ্যে কারও যদি ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যায় তাহলে এই দেশগুলো বাংলাদেশি প্রবাসীদের ভিসার মেয়াদ বাড়াবেন।’

About

Check Also

ফ্রান্সের নতুন প্রধানমন্ত্রী জ্যঁ ক্যাসটেক্স

ফ্রান্সের নতুন প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন জ্যঁ ক্যাসটেক্স। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার নাম ঘোষণা করেন প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *